রাজা টংনাথের প্রাসাদ – ঠাকুরগাঁও

রাজা টংকনাথের রাজবাড়ি ১৯১৫ সালে রানীশংকৈল উপজেলা বাচোর ইউনিয়নের কুলিক নদীর তীরে মালদুয়ার জমিদার রাজা টংকনাথের রাজবাড়ি দ্বারা প্রতিষ্ঠিত। টঙ্গনাথের পিতার নাম ছিল বুদ্ধিনাথ চৌধুরী। বুদ্ধিনাথ চৌধুরী মৈথিলিব্রক্ষন ও কাবতিহারের ঘোষ বাগোওয়ালা বংশের জমিদার শ্যামরাই মন্দিরের সেবক ছিলেন। নিঃসন্তান বৃদ্ধ গোপালক জমিদার সব জমিদারি সেবায়তের তত্ত্বাবধানে রেখে কাশীবাসে গিয়ে একটি তামার থালায় রাখলেন যে, কাশী থেকে না ফিরলে শ্যামরাই মন্দিরের সেবায়ত এই জমিদারির মালিক হয়ে যাবে। পরে বৃদ্ধ জমিদার ফিরে না আসায় বুদ্ধনাথ চৌধুরী জমিদারি পান।

তবে বুদ্ধিনাথ চৌধুরীর দু-এক পুরুষ পূর্বেরও এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে বলে অনেকে মনে করেন। রাজবাড়ীর নির্মাণকাজ বুদ্ধনাথ চৌধুরীর দ্বারা শুরু হলেও রাজা টংনাথ দ্বারা সম্পন্ন হয়। টংনাথ ব্রিটিশ সরকারের কাছ থেকে রাজা উপাধি পান। প্রাসাদটি ১৯ শতকের শেষের দিকে নির্মিত হয়েছিল।

কিভাবে যাবেন।

রানীশংকৈল বাস স্টপে ভ্যান যোগ/মোটরসাইকেল যোগে যাওয়া যায়। পাশেই বাচোর ইউনিয়ন পরিষদের পুরনো ভবন।

Leave a Comment