মণিপুরী পল্লী – মৌলভীবাজার

মণিপুরী পল্লী মৌলভীবাজার জেলা শহর থেকে প্রায় ৩৫ কিলোমিটার দূরে কমলগঞ্জ উপজেলায় মণিপুরীদের আবাসস্থল। এদেশে বসবাসকারী মণিপুরী সম্প্রদায়ের অধিকাংশ মানুষ মৌলভীবাজার জেলার আদমপুর ও মাধবপুরে বসবাস করে। মণিপুরীদের জীবনযাত্রা পাহাড় এবং বনাঞ্চলের শ্বাসরুদ্ধকর দৃশ্যের চেয়ে বেশি আকর্ষণ করে। নিজস্ব সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের কারণে মণিপুরী সম্প্রদায়ের একটি স্বতন্ত্র খ্যাতি রয়েছে এবং একটি সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে। প্রতি বছর নভেম্বর মাসে অগ্রহায়ণের শুরুতে মণিপুরী পল্লীতে রাস মেলা অনুষ্ঠিত হয়। রাস মেলায় দেশ-বিদেশের বহু দর্শনার্থী আসেন। মণিপুরি স্কার্ফ,  সেলোয়ার-কামিজ, চাদর, শাড়ি,পাঞ্জাবি, ব্যাগ, ফতুয়া  ইত্যাদি কিনতে পারবেন দর্শনার্থীরা। দেশে-বিদেশে মণিপুরিদের তৈরি বিভিন্ন জিনিসের চাহিদা বেশি এবং এই কারণে আপনি রাস মেলা বা মণিপুরী পল্লীতে না গেলেও আপনি এখানকার দোকানে এই মণিপুরি পণ্যগুলি পেতে পারেন। মাধবপুরে মণিপুরী কালচারাল একাডেমি আছে।

মণিপুরী সম্প্রদায়ের নাচের একটি শক্তিশালী খ্যাতি রয়েছে। এই সম্প্রদায়ের ঐতিহ্য এই নৃত্যে প্রতিফলিত হয়। বিশ্বের এই অংশে যে কোনো পর্যটকের মণিপুরী নাচ দেখার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করা উচিত। প্রতি নভেম্বরে বাংলা অগ্রহায়ণ মাসের শুরুতে এখানে রাসমেলার আয়োজন করা হয়। এই সময়ে বেড়াতে গেলে রাসমেলা উপভোগ করতে পারবেন। মণিপুরী সম্প্রদায় তার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির জন্য পরিচিত। প্রায় প্রতিটি মণিপুরী পরিবারের নিজস্ব তাঁত রয়েছে। নিজের পোশাক তৈরি করা মণিপুরী সংস্কৃতির একটি অংশ। এখানে, মণিপুরীর ঐতিহ্যবাহী পোশাক ‘খামি’ প্রদর্শন এবং বিক্রি করা হয়, সেইসাথে তাদের হাতে তৈরি জিনিস যেমন ব্যাগ,শাড়ি, স্কার্ফ,  চাদর ইত্যাদি কেনার জন্য।

কিভাবে যাবেন:

ঢাকা থেকে বাস, ট্রেন ও প্লেনে মৌলভীবাজার যাওয়া যায়। কল্যাণপুর, সায়েদাবাদ, মৌলভীবাজার, কমলাপুর জেলাসহ দেশের সব স্থান থেকে বাস ছাড়ে, কুলাউড়া যেতে মৌলভীবাজারের বাসে যেতে হবে। ঢাকা-মৌলভীবাজার রুটে চলাচলকারী বাসগুলো হল হানিফ এন্টারপ্রাইজ , শ্যামলী পরিবহন, টিআর ট্রাভেলস । ট্রেনে যেতে চাইলে ঢাকার কমলাপুর থেকে সিলেট রুটের ট্রেনে কুলাউড়া স্টেশনে যেতে হবে। ঢাকা থেকে সিলেট রুটে চলাচলকারী ট্রেনগুলো হলো- জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস (সপ্তাহে ৭ দিন দুপুর ২টায়), পারাবত এক্সপ্রেস (প্রতিদিন মঙ্গলবার সকাল ৬:৪০ মিনিটে) ঢাকা থেকে ছেড়ে যায়।

আপনি যদি বিমানে যেতে চান তবে আপনাকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ইউনাইটেড এয়ারওয়েজের ফ্লাইট নং 4H-0511 সিলেটে যেতে হবে এবং তারপরে মৌলভীবাজারে পাবলিক বাসে যেতে হবে। সপ্তাহের মঙ্গল, বৃহস্পতিবার, শনি, রবিবার এই চার দিন ঢাকা-সিলেট রুটে আকাশপথে যাতায়াত করা যাবে। শ্রীমঙ্গল উপজেলায় পৌঁছে স্থানীয় জীপ বা চাঁদের গাড়িতে করে এই গ্রামে যাওয়া যায়।

কোথায় থাকবেন:

মণিপুরী পল্লী দর্শণার্থীদের জন্য শ্রীমঙ্গল উপজেলায় বেশ কিছু রিসোর্ট ও হোটেল আছে যেখানে আপনি বিভিন্ন দামে রাত কাটাতে পারবেন।

এই বিষয়ে আরও তথ্য  জানতে  চাইলে এই লিংকে দেখতে পারেন।

আপনি যদি ভ্রমণ পিপাসু হয়ে থাকেন তাহলে আধুনিক স্থাপত্য, ঐতিহাসিক স্থান, নদী ও সমুদ্র সৈকত, পাহাড়ি অঞ্চল, বাগান ও বনাঞ্চল, বিনোদন কেন্দ্র ইত্যাদি ভ্রমণ স্থানগুলো নিচের লিংক হতে পাবেন।

আপনি রাজশাহী বিভাগ ভ্রমণ স্থানগুলো দেখতে পারেন।

Leave a Comment