খুলনা জেলা পরিচিতি

খুলনা হলো ঢাকা ও চট্টগ্রামের পর বাংলাদেশের তৃতীয় বৃহত্তম শহর। খুলনা বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে রূপসা নদী ও ভৈরব নদীর তীরে অবস্থিত। খুলনা বাংলাদেশের অন্যতম প্রাচীন নদী বন্দর। খুলনা বাংলাদেশের অন্যতম শিল্প ও বাণিজ্যিক এলাকা হওয়ায় খুলনা শহরকে শিল্প নগরী বলা হয়। খুলনা শহর থেকে ৪৮ কি.মি. বাংলাদেশের দ্বিতীয় সমুদ্রবন্দর মংলা সমুদ্র বন্দরে অবস্থিত। বিশ্ব বিখ্যাত ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃত বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবন, খুলনা জেলার দক্ষিণ অংশে অবস্থিত। সুন্দরবন ছড়িয়ে পড়েছে খুলনা বিভাগের খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলায়। খুলনাকে বলা হয় সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার। রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য স্থানের সঙ্গে স্থল, আকাশ ও নৌপথ ব্যবহার করা যাবে।

খুলনাকে বলা হয় সুন্দরবনের প্রবেশদ্বার। রাজধানী ঢাকা থেকে খুলনা শহরের দূরত্ব সড়কপথে ৩৩৩ কিমি। রাজধানীসহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলের সঙ্গে স্থল, আকাশ ও নৌপথ ব্যবহার করা যাবে। ১৮৮৪ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারী কলকাতা থেকে খুলনা পর্যন্ত রেল পরিষেবা চালু হয়, খুলনার প্রথম রেললাইন, এই রেললাইনটি খুলনা জংশন রেলওয়ে স্টেশন হয়ে খুলনায় প্রবেশ করে। অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং বাণিজ্য সহজ হওয়ার কারণে খুলনাকে বাংলার কুয়েত শহর বলা হতো। ১৯১২ সাল থেকে এই অঞ্চলের নদীতে স্টিমবোট চলাচল করছে।

Leave a Comment