অরুনিমা ইকো পার্ক – নড়াইল

অরুণিমা ইকো পার্ক অ্যান্ড রিসোর্ট ৫০ একর জমি নিয়ে ১৪ মে, ২০০৯ সালে শুরু হয়েছিল। এখানে ছোট-বড় ১৯টি পুকুর রয়েছে। একটা বড় লেক আছে। মাঝখানে একটি কৃত্রিম দ্বীপ। দ্বীপটিতে রেস্টুরেন্ট, কটেজ এবং কনফারেন্স রুম রয়েছে।

কনফারেন্স রুম ২০০ থেকে ৭০০ জন লোক বসতে পারে। এতে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর, বড় অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য হোয়াইটবোর্ডসহ সবকিছু রয়েছে। এখানে রাত্রিযাপনের  থাকার ব্যবস্থা আছে। এস এম সুলতান হল, মধুমতি নবগঙ্গা কটেজ, রয়্যাল কোজেট, এবং দ্বীপ কটেজ ইত্যাদি অতিথিদের জন্য সুন্দর থাকার ব্যবস্থা। বিভিন্ন ধরনের মানুষের জন্য বিভিন্ন সিস্টেম আছে।

সময় কাটানোর জন্য গলফ, দাবা, টেনিস, বাস্কেটবল, টেবিল টেনিস, লুডো, ব্যাডমিন্টন, ইত্যাদি খেলার ব্যবস্থা রয়েছে। বিনোদনের জন্য পার্কে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের নৌকা, ঘোড়ার গাড়ি ইত্যাদি, এছাড়াও রয়েছে প্রাইভেট ভ্যান ও রিকশা। অতিথিরা এই ভ্যান, রিকশায় চড়ে পার্কটি ঘুরে দেখতে পারেন। লেকের ধারে বসার জন্য বেঞ্চ ও গাছের দোলনা রয়েছে। লেক জুড়ে রয়েছে ৪টি বাঁশের সেতু। রিসোর্টের পুকুর ও হ্রদে অনেক ধরনের মাছ রয়েছে। এখানে সর্বোচ্চ ৫/৬ কেজি ওজনের মাছ পাওয়া যায়।  টিকিট কিনে অতিথিরা এখানে বড়শি দিয়ে মাছ ধরতে পারেন। শিশুদের জন্যও রয়েছে চমৎকার এই আয়োজন। তারা ছোট জলে মাছ ধরতে পারে। এর জন্য আপনাকে টিকিট কিনতে হবে।

লেকের চারপাশে রয়েছে শত শত রকমের ফলের গাছ। এছাড়াও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফুল ও ঔষধি গাছ। আছে বন আর পাহাড়। শীতকালে বিভিন্ন প্রজাতির দেশি-বিদেশি অতিথি পাখি এখানে বেড়াতে আসে। রিসোর্টটি সর্বদা তাদের আড্ডায় মুখর থাকে।

রিসোর্টে প্রবেশের জন্য ১০০ টাকা মূল্যের টিকিট লাগবে। পিকনিক পার্টির জন্য মাথাপিছু ৫০% ছাড় রয়েছে। নিরাপত্তা ব্যবস্থাও খারাপ নয়। এর জন্য ৮ জন সশস্ত্র নিরাপত্তারক্ষী রয়েছেন। আরও তথ্যের জন্য, অনুগ্রহ করে যোগাযোগ করুন – চেয়ারম্যান – খবির উদ্দিন আহমেদ – 01711-693788, ব্যবস্থাপনা পরিচালক – ইরফান আহমেদ – ব্যবস্থাপক আব্দুল হাকিম – 01711-422203

কিভাবে যাবেন:

অরুণিমা ইকো পার্কে যেতে চাইলে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া বা মাওয়া পদ্মা নদী পার হয়ে বাংগা-ভাটিয়াপাড়া হয়ে দিঘলিয়া বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। সেখান থেকে অটোরিকশায় করে মধুমতি নদীতে যেতে হবে। অথবা গোপালগঞ্জ পুলিশ লাইন মোড়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশা বা প্রাইভেট কার নিয়ে শহরের মধ্য দিয়ে মধুমতি নদীর চড়াইল ব্রিজ পার হয়ে সরাসরি অরুণিমা রিসোর্ট গলফ ক্লাবে যেতে পারেন।

ঢাকা থেকে নড়াইলগামী বাসগুলো হল:

  1. হানিফ এন্টারপ্রাইজ,গাবতলী কাউন্টার, ফোন: 801179
  2. ঈগল পরিবহন,গাবতলী কাউন্টার, ফোনঃ ০৪৪৯৪৪১৩৬৭৩
  3. সাদ সুপার ডিলাক্স পরিবহন,গাবতলী কাউন্টার, ফোন: 01727521414

কোথায় অবস্থান করবেন:

কাছাকাছি একটি শান্ত পিকনিক এলাকায় থাকার ব্যবস্থা পাওয়া যায়। নড়াইলের হোটেলগুলোতেও রাত্রি যাপন করা যায়।

সম্রাট আবাসিক হোটেল। যোগাযোগ ব্যক্তি: 01198052789

আধুনিক আবাসিক হোটেল। যোগাযোগ ব্যক্তি: 01917835028

সার্কিট হাউস। যোগাযোগ ব্যক্তি: 0481-62268

Leave a Comment